/মার্কিন হোমল্যান্ড সিকিউরিটি প্রধানের পদত্যাগ

মার্কিন হোমল্যান্ড সিকিউরিটি প্রধানের পদত্যাগ

দায়িত্ব নেওয়ার মাত্র ছয় মাস পর পদত্যাগ করলেন যুক্তরাষ্ট্রের হোমল্যান্ড সিকিউরিটির ভারপ্রাপ্ত প্রধান কেভিন ম্যাক অ্যালিনান। এ বছরের ৭ এপ্রিল কার্স্টজেন নিয়েলসেন (৪৬) পদত্যাগ করার পর ভারপ্রাপ্ত হিসেবে তাঁর স্থলাভিষিক্ত হয়েছিলেন ম্যাক অ্যালিনান (৪৮)। তিনি প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মেয়াদে চতুর্থ ব্যক্তি হিসেবে এই পদে নিযুক্ত হয়েছিলেন।

এর আগে নিয়েলসেনের পদত্যাগ নিয়ে বলা হয়েছিল, যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণ সীমান্ত দিয়ে অবৈধভাবে প্রবেশকারী অভিবাসীদের ঠেকাতে ট্রাম্পের বিতর্কিত অভিবাসন নীতি বাস্তবায়নে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করলেও নিয়েলসেনের সঙ্গে ট্রাম্পের সম্পর্কের অবনতি ঘটে। সবচেয়ে বিতর্কিত নীতির প্রতি পূর্ণ আনুগত্য এবং ব্যাপক চাপ নিয়ে দায়িত্ব পালন সত্ত্বেও তাঁর কর্মদক্ষতা নিয়ে অসন্তুষ্ট ছিলেন ট্রাম্প। ১৮ মাস হোমল্যান্ড সিকিউরিটি প্রধানের দায়িত্ব পালন করেন নিয়েলসেন। ২০১৭ সালের জানুয়ারিতে হোমল্যান্ড সিকিউরিটির প্রধান জন কেলির স্থলাভিষিক্ত হয়েছিলেন তিনি।

ম্যাক অ্যালিনানের পদত্যাগ নিয়ে ট্রাম্প এক টুইটে বলেছেন, ম্যাক অ্যালিনান তাঁর পরিবারের সঙ্গে আরও বেশি সময় কাটাতে চান। তাঁর পদে নতুন দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তার নাম সামনের সপ্তাহে ঘোষণা করা হবে।

ম্যাক অ্যালিনানও মেক্সিকো সীমান্তে অভিবাসী ঠেকাতে প্রেসিডেন্টের কঠোর নীতি বাস্তবায়নের তদারকিতে ছিলেন। বিশ্লেষকদের মতে, ম্যাক অ্যালিনানের সঙ্গেও সম্পর্ক ভালো যাচ্ছিল না ট্রাম্পের। অভিবাসন ইস্যুতে বিতর্কের ধরন নিয়েও তিনি সমালোচনা করেন। সম্প্রতি ওয়াশিংটন ডিসির একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে বিক্ষোভরত শিক্ষার্থীরা তাঁর উদ্দেশে ক্ষোভ ঝেড়েছিলেন।

এ বছরের এপ্রিলে হোমল্যান্ড সিকিউরিটি প্রধানের পদ ছেড়েছিলেন ক্রিস্টজেন নিয়েলসেন। ছবি: এএফপি

ম্যাক অ্যালিনানের পদত্যাগের ঘোষণা দিয়ে ট্রাম্প বলেন, ‘তিনি দারুণভাবে তাঁর দায়িত্ব পালন করেছেন। সীমান্ত অতিক্রমের সংখ্যা কমিয়ে আনতে আমরা একসঙ্গে ভালো কাজ করেছি। অনেক দিন সরকারি চাকরি করার পর কেভিন এখন তাঁর পরিবারের সঙ্গে বেশি সময় কাটাতে চান এবং বেসরকারি কাজে যোগ দিতে চান।’

সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার প্রশাসনে ম্যাক অ্যালিনান শুল্ক ও সীমান্ত সুরক্ষা (সিবিপি) বিভাগের ডেপুটি কমিশনার ছিলেন। ২০১৫ সালে তিনি বারাক ওবামার কাছ থেকে বেসামরিক চাকরি খাতের সর্বোচ্চ পর্যায়ের পুরস্কার গ্রহণ করেন। ২০১৮ সালে সীমান্তে আটক অভিবাসন প্রত্যাশীদের সন্তানদের বিচ্ছিন্ন করে রাখার ট্রাম্পের বিতর্কিত নীতির সময় দায়িত্ব পালনের কারণে কঠোর সমালোচনার মুখে পড়েন ম্যাক অ্যালিনান।

এ মাসের শুরুতে ‘ওয়াশিংটন পোস্ট’-এর এক প্রতিবেদনে ম্যাক অ্যালিনানকে নিয়ে বলা হয়েছিল, ট্রাম্প প্রশাসনে তিনি ক্রমেই বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ছেন। যাঁরা ট্রাম্পের পক্ষে বেশি সোচ্চার, তাঁদের আড়ালে পড়ে যাচ্ছেন তিনি। এক সাক্ষাৎকারে তিনি দুঃখ প্রকাশ করে বলেছিলেন, বিভাগীয় অনেক কিছুর ওপর তাঁর কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। একজন জ্যেষ্ঠ পদধারী হিসেবে এটা অস্বস্তিকর।